1. iliycharman7951@gmail.com : admin :
  2. support@wordpress.org : support :
চকরিয়ায় নির্বাচনী সহিংসতা বেড়েই চলছে, জনমনে আতঙ্ক - matamuhuri - মাতামুহুরী
বুধবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
দুদকের মামলায় স্ত্রী সহ কারাগারে শাহজাহান আনচারী বিলছড়ি হেব্রোণ মিশনে বার্ষিক উপহার বিতরণ কালোবাজারী হাত থেকে কোন ভাবেই থামানো যাচ্ছে না কক্সবাজার রুটের ট্রেনের টিকিট জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন সম্পন্ন : জসিম আবছার জাহিদ হেলাল হারুন মুকুল জয় সহ ২৭ জন জয়ী জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন শনিবার : ২৩ পদে লড়ছেন ৩৫ জন প্রার্থী প্রধানমন্ত্রী একবার যাকে দুরে টেলে দেন, তাকে আর কাছে আসতে দেন না চকরিয়া কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে ফুল দেওয়া নিয়ে সাবেক সাংসদ জাফরের নেতৃত্বে বিশৃঙ্খলা ও সাধারণ মানুষকে অস্ত্রের ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগে শহরের ২টি প্রাইভেট হাসপাতালে অভিযান চকরিয়ায় ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতা সম্পন্ন চকরিয়া সোসাইটি বায়তুল মাওয়া শাহী জামে মসজিদ কমিটি গঠনে প্রশাসনের তিন সদস্যের কমিশন গঠন

চকরিয়ায় নির্বাচনী সহিংসতা বেড়েই চলছে, জনমনে আতঙ্ক

নিজস্ব প্রতিবেদক :
  • আপডেট : সোমবার, ১৫ জানুয়ারী, ২০২৪
  • ৯৭ পঠিত

স্বেচ্ছাসেবকলীগ নেতা কালামকে অপহরণের পর মূমুর্ষ অবস্থায় উদ্ধার

কক্সবাজার-১ (চকরিয়া-পেকুয়া) আসনে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতা বেড়েই চলেছে। প্রতিনিয়ত কোথাও না কোথাও ঘটছে নির্বাচনী সহিংসতা। শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে চকরিয়া পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের আবাসিক মহিলা কলেজের পাশে ডিস অফিস এলাকায় সাবেক সাংসদ জাফর আলমের নেতৃত্বে হামলা করেছে দুই আওয়ামীলীগ নেতার উপর। সর্বশেষ আওয়ামী লীগ সেচ্ছাসেবকলীগের কক্সবাজার জেলার সাবেক সদস্য আবুল কালাম আবুকে (৪৫) সন্ত্রাসীরা মারধর ও চোখে ছুরিকাঘাতের পর হাত-পা বেঁধে মারা গেছে মনে করে সড়কের পাশে ফেলে রাখে। তিনি সাহারবিল ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও মাতামুহুরী সাংগঠনিক উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মহসিন বাবুলের ছোট ভাই।

সোমবার (১৫ জানুয়ারি) সকাল ৮টার দিকে উপজেলার পূর্ববড় ভেওলা ইউনিয়নের আটারকুম এলাকা থেকে অজ্ঞান অবস্থায় আবুল কালামকে উদ্ধার করে স্থানীয় লোকজন। পরে তাকে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় কর্তব্যরত চিকিৎসক চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন।

গুরুতর আহত আবুল কালাম আবু (৪৫) চকরিয়া উপজেলার সাহারবিল ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ডের আব্দুল খালেকের ছেলে। আবু বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।
আহত আবুল কালামের বড় ভাই সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মহসিন বাবুল বলেন, রবিবার সন্ধ্যায় ছোট ভাই আবু কক্সবাজার যাওয়ার জন্য বাড়ি থেকে বের হন। গাড়ির জন্য সাহারবিল এলাকাস্থ সড়কে দাঁড়ালে একদল সন্ত্রাসী থাকে জোরপূর্বক অপহরণ করে নিয়ে যায়। সন্ত্রাসীরা জোর করে আবুকে দিয়ে বাড়িতে মোবাইল করে কক্সবাজার পৌঁছাই বলে নিশ্চিত করেন। পরবর্তীতে সন্ত্রাসীরা আবুকে সারারাত মারধর করে এবং একটি চোখে ছুরিকাঘাত করে সোমবার সকালে পূর্ববড় ভেওলা ইউনিয়নের আটারকুম এলাকায় ফেলে রেখে চলে যায়। সেখান থেকে স্থানীয় লোকজন মূমুর্ষ অবস্থায় আবুকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। ওইসময় হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক আবুর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। বর্তমানে অজ্ঞান অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন আবু।

তিনি আরও বলেন, আবুল কালাম আবু জেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সদস্য। গত ৭ জানুয়ারি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ছোট ভাই আবু প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা ও জেলা আওয়ামী লীগের নির্দেশনায় কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান তথা হাতঘড়ি প্রতিকের প্রার্থী মেজর জেনারেল (অব:) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম বীর প্রীকের পক্ষে কাজ করেন। ৭ জানুয়ারি নির্বাচনের দিন সাহারবিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে হাতঘড়ির পক্ষে এজেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালনও করেন। মুলত নির্বাচনে হাতঘড়ির পক্ষে ভোট করায় প্রতিপক্ষের লোকজন এই ঘটনাটি ঘটিয়েছে বলে মহসিন বাবুল জানান। আবুুল কালাম আবুকে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বেও গুলি করে হত্যার চেষ্টা চালানো হয়েছিলো।
শুক্রবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে চকরিয়া পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ডের আবাসিক মহিলা কলেজের পাশে ব্যবসায়ি সন্তোষ দাশের চায়ের দোকানে আমি ও চিরিঙ্গা ইউনিয়র আওয়ামী লীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আসাব উদ্দিন কাজল সহ আরও কয়েকজন ব্যক্তি নিয়ে আড্ডা করছিলাম। এসময় সাবেক সাংসদ জাফর আলমের নেতৃত্বে তাদের উপর হামলা চালানো হয়।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ মোহাম্মদ আলী বলেন, ঘটনার খবর পাওয়ার সাথে সাথে পুলিশ পাঠানো হয়। হাত-পা বাঁধা অবস্থায় আটারকুম নামক স্থান থেকে স্থানীয় লোকজন আবুকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। বর্তমানে তিনি চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
তিনি আরও বলেন, এজাহার দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এরই মধ্যে ঘটনাটি কে বা কারা ঘটিয়েছে তা সনাক্ত করতে পুলিশ কাজ করছে।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও খবর

© All rights reserved © 2019 LatestNews
Theme Customized BY Iliaych