সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৮:৫০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সে ইসলামী গবেষণা কেন্দ্রের উদ্বোধন প্রথমবারের মতো চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যানের নিয়োগ পেলেন চকরিয়ার সন্তান রেজাউল করিম চকরিয়ায় সাঈদী-জাফরের অস্তিত্বের লড়াই! সদর হাসপাতালে অনিয়মে ভরা নিয়োগ পরীক্ষা : পক্সি দিতে এসে যুবক আটক চকরিয়ায় আচরণ বিধি লঙ্ঘনের দায়ে সাত প্রার্থীকে ৩২ হাজার টাকা জরিমানা  পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ২য় বৈঠক অনুষ্ঠিত উপজেলা নির্বাচনে সভাপতি সম্পাদকের পরাজয় মানে ভোট সুষ্টু হয়েছে—পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.হাসান ১৯ বছর পর আবারো নুরুল আবছারের নামের পাশে চেয়ারম্যান দোয়াত কলম প্রতীকের প্রার্থী ফজলুল করিম সাঈদীকে জেতাতে নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ সদরে আবছার মহেশখালীতে জয়নাল কুতুবদিয়ায় হানিফ বিন কাশেম জয়ী

তিনদিন ব্যাপী সাং গ্রেং উৎসব শুরু : আনন্দে মাতোয়ারা রাখাইন সম্প্রদায়

মাহবুবুর রহমান, কক্সবাজার ::
  • সময় : বুধবার, ১৭ এপ্রিল, ২০২৪
  • ৩৬ পঠিত

”রাখাইন সম্প্রদায়ের বর্ষপঞ্জিকা মতে, ১৬ এপ্রিল (রোববার) রাতে শেষ হয়েছে ১৩৮৫ মগীসন, ১৭ এপ্রিল (সোমবার) শুরু হলো রাখাইন নতুন বর্ষ ১৩৮৬ মগীসন।
পুরোনো বছরের সব গøানী ও দুঃখ জলে মুছে নতুনভাবে জলে জলে পরিশুদ্ধির জন্য কক্সবাজারে শুরু হয়েছে রাখাইন সম্প্রদায়ের মহা সাংগ্রেং উৎসব। ১৯ এপ্রিল পর্যন্ত টানা ৩ দিন চলবে এই উৎসব। কক্সবাজার শহরে ১ টি প্যান্ডেল সহ জেলায় ৯০টি মত প্যান্ডেলে চলবে এবারের জলখেলী উৎসব। এমন টাই জানিয়েছেন রাখাইন বুড্ডিস্ট ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের নেতারা। কক্সবাজার শহর ছাড়াই মহেশখালী,রামু, চকরিয়া টেকনাফেও বড় আকারো আয়োজন চলছে জলখেলী উৎসবের।
এ উৎসবের সার্বিক সহযোগিতা করেছে কক্সবাজার সাংস্কৃতিক কেন্দ্র। কেন্দ্রের পরিচালক মং ছেন লা বলেন, ‘এবার কক্সবাজার শহরের রাখাইন পল্লীতে ১২টি প্যান্ডেল তৈরি হয়েছে। সার্বিক নিরাপত্তার মধ্যে ৩দিন উৎসব চলবে। এখানে কেবল রাখাইন নয়, অন্যান্য ধর্মের মানুষও আসছেন। যেটার কারণে সম্প্রীতির একটি বন্ধনও তৈরি হয়।
রাখাইনদের ৩ দিনের জলকেলি উৎসব সার্বিক সফল ও শান্তিপূর্ণভাবে সম্পন্ন করতে পুলিশ কাজ করছে বলে জানিয়েছেন কক্সবাজারের পুলিশ সুপার মো. মাহফুজুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘জলকেলি উৎসবটি রাখাইনদের হলেও এটি কালক্রমে এ অঞ্চলের মানুষের ঐতিহ্যবাহী সংস্কৃতির অংশ হয়ে উঠেছে। এ জন্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্যান্ডেলগুলোতে পুলিশ সদস্য ও গোয়েন্দারা অবস্থান করে।
এদিকে রাখাইন সম্প্রদায়ের মানুষ বলছেন, পুরোনো বছরের সব গ্লানি ও দুঃখ জলে মুছে নতুনভাবে জলে জলে পরিশুদ্ধির জন্য এই উৎসব। টানা ৩ দিন চলবে এই উৎসব।
কক্সবাজার শহরের রাখাইন পল্লীতে দেখা গেছে ঢোল-বাজনা, নেচে গেয়ে তরুণ-তরুণীসহ বিভিন্ন বয়সের মানুষ শোভাযাত্রা সহকারে যান প্যান্ডেলে-প্যান্ডেলে। যেখানে আগে থেকে বসে ছিলেন সারিবদ্ধ তরুণী। শোভাযাত্রা নিয়ে যাওয়া তরুণরা প্যান্ডেলের সামনে গিয়ে কোনো একজন তরুণীকে আগে পানি নিক্ষেপ করে আমন্ত্রণ জানান। ওই আমন্ত্রণে সাড়া দিয়ে তরুণী তরুণকে লক্ষ্য করে পানি নিক্ষেপ করে। এরপর উভয় পক্ষের মধ্যে চলে পানি নিক্ষেপের খেলা।
রাখাইন তরুণ লা চিং অ্যাং বলেন, নতুন বর্ষকে বিদায় ও বরণের ওই হচ্ছে ঐতিহ্যবাহী সামাজিক উৎসবের রীতি। এ উৎসব ঘিরে ৩ দিনব্যাপী জলকেলি ছাড়াও বাড়িতে বাড়িতে রান্না হচ্ছে নিজস্ব খাবার।
এটাকে প্রাণের উচ্ছ্বাসে মাতিয়ে তোলার উৎসব মন্তব্য করে সেং হ্লা রাখাইন বলেন, ‘একে অপরের সঙ্গে জল নিক্ষেপ ছাড়াও নিজের মধ্যে সামাজিক বন্ধন ও ঐক্য তৈরিতে এ উৎসব ভূমিকা রাখে।’

 

https://www.facebook.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2018 News Smart
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com