সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৮:৫২ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ :
কক্সবাজার বায়তুশ শরফ কমপ্লেক্সে ইসলামী গবেষণা কেন্দ্রের উদ্বোধন প্রথমবারের মতো চট্টগ্রাম শিক্ষাবোর্ডের চেয়ারম্যানের নিয়োগ পেলেন চকরিয়ার সন্তান রেজাউল করিম চকরিয়ায় সাঈদী-জাফরের অস্তিত্বের লড়াই! সদর হাসপাতালে অনিয়মে ভরা নিয়োগ পরীক্ষা : পক্সি দিতে এসে যুবক আটক চকরিয়ায় আচরণ বিধি লঙ্ঘনের দায়ে সাত প্রার্থীকে ৩২ হাজার টাকা জরিমানা  পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির ২য় বৈঠক অনুষ্ঠিত উপজেলা নির্বাচনে সভাপতি সম্পাদকের পরাজয় মানে ভোট সুষ্টু হয়েছে—পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.হাসান ১৯ বছর পর আবারো নুরুল আবছারের নামের পাশে চেয়ারম্যান দোয়াত কলম প্রতীকের প্রার্থী ফজলুল করিম সাঈদীকে জেতাতে নেতাকর্মীরা ঐক্যবদ্ধ সদরে আবছার মহেশখালীতে জয়নাল কুতুবদিয়ায় হানিফ বিন কাশেম জয়ী

অনলাইন জুয়া ও গেমসে মারাত্মক আসক্ত যুব সমাজ

মাহবুবুর রহমান, কক্সবাজার ::
  • সময় : সোমবার, ৬ মে, ২০২৪
  • ১৪ পঠিত

কক্সবাজারের একটি বেসরকারী মাদক নিরাময় কেন্দ্রে চিকিৎসারত মো: রফিক (২২) ছদ্ধনাম। তার সাথে কথা প্রসঙ্গে জানা যায়, কক্সবাজার বায়তুশ শরফ জব্বারিয়া একাডেমি থেকে ৪ বছর আড়ে মেধাতালিকায় এসএসসি পাস করে। কক্সবাজার সিটি কলেজে ভর্তি হয়ে ভাল রেজাল্ট নিয়ে এইচ এসসি পাস করেছে।

২ বছর আগে বন্ধুদের পাল্লায় পড়ে অনলাইন জুয়া খেলায় আসক্ত হয়। প্রথমে কিছুদিন ভালই টাকা আয় হয়। পরে জুয়া লোভ বেড়ে গেলে প্রায় সময় হেরে যায়। এতে অনেক টাকা ধারদেনা হয়ে যায়। টাকা জোগাড় করতে গিয়ে ইয়াবা পাচার করে। পরে ইয়াবা আসক্ত হয়ে পড়ে। প্রথমে পরিবার বুঝতে না পারলে পরে বুঝতে পেরেছে ততক্ষনে আমার জীবন শেষ। এখন মাদক নিরাময় কেন্দ্রে আছি। তার মতে শহরের অনেক উঠতি বয়সের ছেলে মেয়ে অনলাইন জুয়া এবং গেমসে আসক্ত হয়ে জীবন তছনছ হয়ে গেছে। অনেক ভাল এবং উচ্চবংশীয় পরিবারের ছেলে এমনকি মেয়েরাও অনলাইন জুয়া এবং গেমসে আসক্ত হয়ে বিপথে চলে গেছে। এটা আসলে সম্পূর্ন ভুল বলে জানায় সে। এখন কিভাবে নতুন করে বেঁচে থাকতে পারি সে জন্য চেস্টা করছি।
কক্সবাজার শহরের একটি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক জানান, আমার ছেলে চট্টগ্রামে অনার্স শেষ করেছে। সম্প্রতি তার চলাফেরায় অপ্রত্যাশিত কিছু দেখার পরে খোঁজ নিয়ে জানতে পেরেছি ছেলে অনলাইন জুয়া এবং গেমসে আসক্ত হয়ে পড়েছে মারাত্মক ভাবে। তার এখন শুধু টাকার প্রয়োজন হয়। সে জন্য বাড়িতে প্রায় সময় ঝগড়া করে। তার মা ছোট ভাই বোন থেকেও টাকা নিয়ে যায়। সে বাড়িতে তার মা স্ট্রোক করেছে। এক কথায় পরিবারে অসান্তি ভর করেছে। কাউকে বলতেও পারছিনা,সইতেও পারছি না।
কক্সবাজার শহরের টেকপাড়া সমাজ কমিটির সভাপতি আমির হোসেন সওদাগর বলেন,আমরা প্রায় সময় সামাজিক বিচার শালিষ করি,সেখানে দেখা যায়,অনেক ছেলে অনলাইনে জুয়া এবং গেমসে আসক্ত হয়ে টাকা পায়সা ধার নিয়েছে। সে জন্য ঝগড়াঝাটি হয়েছে। পরে মটর সাইকেল ছিনতাই থেকে শুরু করে মাদক পাচার সহ অনেকে অপরাধে জড়িয়ে পড়েছে। আসলে অভিবাবকদের সচেতন এবং রাষ্ট্রিয়ভা এই বিষয়ে কঠোর না হলে ভবিষ্যতে আরো ভয়াবহ পরিস্থিতি হতে পারে।
কক্সবাজারের এক সিনিয়র পুলিশ কর্মকর্তা বলেন, অনলাইন জুয়া এবং গেমস মাদকের চেয়ে ক্ষতিকারক। এখানে প্রথমে বিপুল টাকা পায়। পরে লোভে পড়ে লোকসান হয়,তখন আর সামাল দিতে পারে না। এখানে বিভিন্ন পাড়া মহল্লা ভিত্তিক অনলাইন জুয়ার সিন্ডিকেট আছে। এখানে অনেক রাজনৈকিত নেতার ছেলেরাও জড়িত। তিনি বলেন,এ বিষয়ে এখানে কোন আইন হয়নি তবে বিষয়টি খুব মারাত্মক আকার ধারন করেছে সেটা সত্য।

পিএমখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আবদুল্লাহ বলেন, প্রায় সময় শুনি ক্রিকেট,ফুটবল খেলা নিয়ে বাজি ধরে টাকা লাভ হয়েছে আবার অনেকে হেরেছে। সেই টাকা নিয়ে মারামারি হয়েছে। এমনকি অনেক সময় পরিবারের মূল্যবান জিনিস পত্র বন্ধক রেখেও জুয়া খেলেছে এরকমও শুনি। এ বিষয়ে আমাদের করণীয় তেমন কিছু নাই তবে আমরা পুলিশের কাছে পাঠালে তারাও তেমন কিছুই করতে পারেনা। বিষয়টি নিয়ে আসলে ব্যাপক ভাবে সচেতনা মূলক কাজ করা দরকার।
চৌফলদন্ডি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান বলেন, েমোবাইলে ছক্কা খেলতে পাড়ার চার দোকানে বা বিভিন্ন মোড়ে অনেক যুবকদের দেখা যাবে। তারা আসলে টাকা দিয়ে জুয়া খেলছে। অনেকে ৫০০ থেকে ১০ হাজার টাকার পর্যন্ত বাজি ধরে। আবার অনেকে ক্রিকেট,দেশে বিদেশে ফুটবল খেলা নিয়ে জুয়া ধরে। এতে যুব সমাজ মারাত্মক ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। সে জন্য বিভিন্ন এনজিওর মাধ্যমে ব্যাপক সচেতনতা মূলক প্রচরণা চালানো দরকার।

https://www.facebook.com/

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2018 News Smart
Theme Dwonload From ThemesBazar.Com